বগুড়ায় আবাসিক হোটেলে মা ও ছেলের গলকাঁটা লাশ উদ্ধার 


মো. রাসেল, বগুড়া।। ২জুন রবিবার সকাল আনুমানিক ১১.০০, সময়  বগুড়া শাজাহানপুর উপজেলার বনানীতে শুভেচ্ছা আবাসিক হোটেলের ৩০১ নম্বর কক্ষ থেকে  মা ও এক বছরের শিশুর গলাকাটা  মরদেহ উদ্ধার করা হয়,  এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় ঘাতক আজিজুল কে  আটক করেছে পুলিশ।
নিহতেরা  হলেন পূর্ব বগুড়ার নারুলী তালপট্টি এলাকার আসাদুল ইসলামের মেয়ে (২১) আশা মনি। ও ধুনট উপজেলার হেউটনগর গ্রামের ঘাতক আজিজুলের স্ত্রী ও ১ বছরের ছেলে সন্তান আবদুল্লাহ আল রাফি।
স্ত্রী ও ছেলেকে হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত আজিজুলকে আটক করেছে পুলিশ। অভিযুক্ত আজিজুল পেশায় একজন সেনাসদস্য। তিনি বর্তমানে চট্টগ্রাম সেনানিবাসে কর্মরত আছেন দুই মাসের ছুটিতে তিনি সপরিবারে বগুড়ায় আসেন।
এ সব তথ্য নিশ্চিত করেছেন বগুড়ার শাজাহানপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শহিদুল ইসলাম। শনিবার সন্ধ্যায় আজিজুল তার স্ত্রী ও সন্তানকে নিয়ে শুভেচ্ছা হোটেলে আসেন এবং একটি কক্ষ ভাড়া নেন। রাতের কোনো এক সময় এই নিসৃশংস হত্যাকাণ্ডের ঘটনা ঘটায়  রবিবার সকালে শুভেচ্ছা আবাসিক হোটেলের ৩০১ নম্বর কক্ষের বাথরুম থেকে আশামণী এবং ওই রুমের বিছানার নিচে থেকে তাঁর এক বছরের ছেলে আবদুল্লাহ আল রাফির গলা কাঁটা মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এবং হোটেল ম্যানেজার এর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে, নিহত আশা মনির স্বামী ঘাতক আজিজুল হককে আটক করা হয়।
এ বিষয়ে বগুড়ার শাজাহানপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) শহিদুল ইসলাম জানান, প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে আসামি আজিজুল হত্যা কাণ্ডের কথা স্বীকার করেছেন। উক্ত ঘটনায় থানায় মামলা দায়ের এর প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *